ধারালো অস্ত্রের কোপে জখম তিনজন

 

সৌগত মন্ডল। রামপুরহাট- বীরভূম

গতকাল বীরভূমের নলহাটি থানার লোহাপুর বাজারে এক মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের ধারালো অস্ত্রের কোপে জখম হলো ৩ জন। তাদের মধ্যে এক পুলিশ অফিসার ও রয়েছে। অভিযুক্ত যুবকের নাম রমেশ ভকত। পরিবার সূত্রে জানা গেছে নেশার টাকা না পেয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পরেছে এই যুবক। বাড়ি লোহাপুর বাজারে। কয়েকদিন থেকেই নেশার টাকার জন্য ভয় দেখিয়ে টাকা নেওয়া, ফ‍্যান চুরি করে বিক্রি করেছিল। কয়েকদিন আগে ট্রেনে ফ‍্যান চুরি করতে গিয়ে R.P.F এর হাতে হাতেনাতে ধরা পরে ও মার খায়। মঙ্গলবার রাতে ATM ভাঙ্গতে গেলে বাঁধা দেয় সিভিক ভলেন্টিয়াররা।

সকালের দিকে ওই সিভিক ভলেন্টিয়াররা বাজারে ডিউটি করছিলেন। রমেশ তাদের দেখতে পেয়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে তারা করে। সিভিকরা পালিয়ে গেলে তাদের রেখে যাওয়া মটরবাইক্ ভেঙে দেয় রমেশ। এই সব কারনে চরম অশান্তি হয় রমেশের বাড়িতে। সেই অশান্তি থামাতে গেলে বরকত শেখ নামে এক পথচারীর কানে ধারালো অস্ত্রের কোপ মারে রমেশ। রক্তাক্ত অবস্থায় পথচারীকে প্রথমে লোহাপুর ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও পরে রামপুরহাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেই সময় খবর পেয়ে লোহাপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ গয়ানাথ মন্ডল রমেশকে ধরতে গেলে তার হাতে কোপ মারে। এক সিভিকের আঙ্গুল কেটে যায়। দুজনকে লোহাপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুপুরে প্রচুর পুলিশ ও সিভিক মিলে রমেশকে ধরে ফেলেন। রামপুরহাট মহুকুমা পুলিশ আধিকারিক অভিষেক রায় বলেন, ধৃত যুবককে বহরমপুরের মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সুস্থ হয়ে উঠলে গ্রেফতার করা হবে তাকে। পরিবার সূত্রে জানা যায় রমেশকে আর কয়েকদিনের মধ্যে বাইরে চিকিৎসার জন্য চিন্তা ভাবনা করছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *