বসিরহাটে নির্বাচনী প্রচারে বিজেপি প্রার্থী শায়ন্তন বসু

 

অর্ণব মৈত্রঃ বসিরহাটে ল’ অ্যান্ড অর্ডার সমস্যা খুব প্রকট। এখানে রাতে মহিলাদের সুরক্ষা নেই’। রবিবার বসিরহাটে এসে এভাবেই প্রশাসনকে তোপ দাগলেন বসিরহাট লোকসভার বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু। বসিরহাটের প্রশাসনের দিকে গাফিলতির অভিযোগ তুলে এদিন বসিরহাট বিজেপি জেলা পার্টি অফিসে সাংবাদিক সম্মেলন করার সময় সায়ন্তন বসু বলেন, ‘ বসিরহাটে সেই ভাবে কোন শিল্প গড়ে না ওঠায় ভেড়ি মাফিয়া ও অবৈধ ইঁটভাটার রমরমা কারবার চলে। মাফিয়ারাই চালাচ্ছে বসিরহাটের ভেড়ির ব্যবসা ও ইঁটভাটা’।

 

প্রসঙ্গত বাম আমলের থেকেই বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া, মিনাখাঁ, হাসনাবাদ, হিঙ্গলগঞ্জ সহ বেশ কয়েকটি ব্লক থেকে মাছের ভেড়ি নিয়ে উঠে এসেছে একাধিক গন্ডগোল। তৃণমূল সরকারের আমলে সেই মাছের ভেড়ি গুলি দখল নেয় শাসক দলের নেতাকর্মীরা। আর সে কারণেই ভেরি মাফিয়ার দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে আগামী দিনে বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রে বিকল্প শিল্পের ব্যবস্থা করা হবে বলে এদিন সাংবাদিক সম্মেলন থেকে প্রতিশ্রুতি দেন সায়ন্তন বসু।

ভেরি মাফিয়া নিয়ে বলতে গিয়ে বসিরহাট লোকসভার প্রাক্তন সাংসদ ইদ্রিস আলীও এই মাফিয়া চক্রের সঙ্গে যুক্ত থাকায় তৃণমূল কংগ্রেস তাকে এই কেন্দ্র থেকে সরাতে বাধ্য হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি। বসিরহাটে বিকল্প শিল্প তৈরি করে সিন্ডিকেট বন্ধের আশ্বাস দেন সায়ন্তন বসু।
বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সায়ন্তন বসুকে বসিরহাট লোকসভার প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পরে রবিবারে প্রথম বসিরহাটে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বড় বড় পা দেন তিনি। এদিন কলকাতা থেকে ধামাখালি হয়ে বাসন্তী রোড ধরে বসিরহাটে ঢোকার সময় বসিরহাট মহকুমার অন্তর্গত বামুনপুকুর এলাকা থেকেই তাকে ঘিরে চরম উৎসাহ ধরা পড়ে দলের কর্মীদের মধ্যে। প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পরে রবিবার বসিরহাট জেলা কমিটির সঙ্গে বৈঠকের উদ্দেশ্যে এদিন বসিরহাটে আসেন তিনি। কিন্তু সাধারণ মানুষ থেকে দলের কর্মীদের উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখে একপ্রস্থ প্রচারও সেরে নেন সায়ন্তন বসু। বসিরহাট নতুন বাজারে ফল, সবজি ও মাছ বাজারের ব্যবসায়ীদের মধ্যে রবিবারের প্রচার সেরে নেন বিজেপি প্রার্থী। বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রে তার প্রতিদ্বন্দ্বি তৃণমূল প্রার্থী নুসরাত জাহান এর বিষয়ে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ আমার কাছে কোনও প্রতিদ্বন্দীতাই নয়’।

প্রতি মুহূর্তের সব রকম খবর জানতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইট করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *