দিনের পর দিন অমানবিকভাবে ধর্ষণ এই নিরীহ প্রাণী কে!

 

বাংলা হান্ট ডেস্ক : মানুষের লোভ লালসা এবং কাম এতটাই মারাত্মক হয়ে উঠেছে যে এর হাত থেকে আট থেকে আশি রেহাই পাচ্ছে না কেউই।

কিন্তু কোন প্রাণীকে যে এত নির্মম ভাবে দিনের পর দিন ধর্ষণ করা যায় এই ঘটনা সকলকে নির্বাক করেছে।

নৃশংস ঘটনা ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ার বোর্নিও দ্বীপে। সেখানে জঙ্গলে একটি বাড়িতে একটি ওরাংওটাং কে দিয়ে দিনের পর দিন দেহব্যবসা করান ওই বাড়ির মালিক।

নির্যাতিত ওই ওরাংওটাং এর নাম পনি। পূর্ব এশিয়ার ইন্দোনেশিয়ার বোর্নিও দ্বীপের জঙ্গলে তার জন্ম হয়। জন্মের পরপরই তাকে মায়ের কোল থেকে ছিনিয়ে নেয় কিছু মানুষরুপী পিশাচ।

কয়েক বৎসর ধরে শিকলে বেঁধে লাগাতার ধর্ষণ করা হয় তাকে। পাশেই একটি কারখানার শ্রমিকেরা অর্থের বিনিময় ওই ওরাংওটাং কি দিয়ে যদি শরীরের চাহিদা মেটায়।

তাকে শিকলে বেঁধে রাখা হয় এবং সুন্দর দেখানোর জন্য তার গায়ের সমস্ত রোম চেঁচে ফেলে বিভিন্ন অলংকার পরিয়ে সাজিয়ে রাখা হয় খদ্দেরদের মন রক্ষার্থে।

পড়ে দেশটির পশু সেবায় নিয়োজিত একটি সংস্থা সেখান থেকে পনি কে উদ্ধার করেন। তখন তার শারীরিক অবস্থা মোটেও ভাল ছিল না।

অনেক সেবা-শুশ্রূষার করার পর সুস্থ হয় পনি। স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে তার প্রায় ১৫ বছর সময় লাগে। তবে পুরুষদের সাথে এখনো স্বাভাবিক নয় পনি।

প্রতি মুহূর্তের সব রকম খবর জানতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইট করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *