বৃদ্ধ দম্পতি মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল বিষ্ণুপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁকুড়া: বৃদ্ধ দম্পতি মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল বিষ্ণুপুরে। ঘটনাটি ঘটেছ শুক্রবার বিষ্ণুপুরের 1 নম্বর ওয়ার্ডের পাঠক পাড়া এলাকায়। মৃত দম্পতির নাম অজিত চৌধুরী (84) ও ইরা চৌধুরী (74)। প্রাথমিকভাবে অনেকে মনে করছেন মানসিক অবসাদেই কীটনাশক খেয়ে এই বৃদ্ধ দম্পতি আত্মহত্যা করেছেন।

স্থানীয় সূত্রের খবর, বিষ্ণুপুরের পাঠক পাড়ার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারী অজিত চৌধুরী । দুই ছেলে সরকারী কর্মচারী। ছোটছেলে বাঁকুড়াতে থাকেন। দুই বৃদ্ধ দম্পতির বড়ছেলে, বৌমা দুই নাতি নাতনীর সাথে পাঠক পাড়ার বাড়িতে থাকতেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বৌমা দীপান্বিতা চৌধুরী বিষ্ণুপুর শহরের কাটানধারে বাপের বাড়ি গিয়েছিলেন। একমাত্র নাতনী টিউশনে গিয়েছিল। নাতনি টিউশন থেকে বাড়ি ফিরে একাধিক বার কড়া নেড়ে সারা না পাওয়ায় মাকে ফোন করে। পরে দীপান্বিতা দেবী এসে অনেক ডাকা ডাকির পর দরোজা না খোলায় দাদাকে ফোন করে ডাকেন। পরে দরোজা ভেঙে বাড়িতে ঢুকে দেখেন মেঝেতে মৃত অবস্থায় পড়ে আছেন অজিত ও ইরা চৌধুরী। পাশে একটি কীটনাশক এর শিশি ও পরে থাকতে দেখেন ।
এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, বৃদ্ধ দম্পতি বাড়ির বাইরে বেরোতেন না। এমনকি পাড়ার লোকেদের সাথে মেলামেশা করতেননা বলেও তারা জানিয়েছেন। তবে এলাকার অনেকে জানিয়েছেন ইরা চৌধুরী শেষের দিকে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছিলেন। স্থানীয়দের একাংশ মনে করছেন যে, দীর্ঘদিনের জীবন সঙ্গিনীর এই মানসিক ভারসাম্যহীনতা থেকে অবসাদে ভূগছিলেন অজিত চৌধুরীও। এই অবস্থা সহ্য না করতে পেরে আত্মহত্যা বলে অনুমান তাদের ।

শুক্রবার সকালে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ মৃতদেহ দু’টি ময়নাতদন্তের জন্য বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেছে। অস্বাভাবিক মৃত্যু র মামলা রুজু করে পুলিশের পক্ষ থেকে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানাগেছে।

আরও পড়ুন   উপাচার্য এবং শিক্ষা দফতরের আধিকারিকদের নিয়ে বিকাশ ভবনে বৈঠক শিক্ষামন্ত্রীর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


  • Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    error: