শুধু আম নয় মালদার আমের তৈরী আমসত্বেও খ্যাতি রয়েছে বিশ্বজুড়ে

মালদাঃ শুধু আম নয় মালদার আমের তৈরী আমসত্বেও খ্যাতি রয়েছে বিশ্বজুড়ে। আমের মরশুম শেষে প্রায় বছরভোর জেলা আমসত্ব বিক্রি হয় দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রান্তে। স্বাদে মিষ্টি, সুসাদু এই আমসত্বের চাহিদা আকাশ ছোঁয়া। মূলত পাকা আম থেকে তৈরী হয় এই সুসাদু আমসত্ব। মালদা জেলার মূলত ইংরেজবাজার, রতুয়া, কালিয়াচক, চাঁচল সহ প্রায় প্রতিটি প্রান্তে তৈরী করা হয় আমসত্ব।চলতি মরশুমে আমের অধিক ফলন ও রোদ ঝলমলে আবহাওয়ার জেরে এবার অধিক আমসত্ব তৈরীর সম্ভবনা দেখছেন মালদা জেলার আমসত্ব প্রস্তুুতকারীরা।তবে সরকারী কোন রকম সাহায্য বা সরকারী ভাবে আমসত্ব বিক্রির কোন পরিকাঠামো না থাকায় আনেক সময় সমস্যায় পড়তে হয়। বাধ্য হয়ে পাইকারদের কাছে কম দামে আমসত্ব বিক্রি করেন প্রস্তুতকারীরা। তাই আমের মত আমসত্ব বিক্রিতেও সরকারী উদ্যোগ ও সাহায্যের দাবী তুলেছেন প্রস্তুতকারীরা।

মালদা জেলার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে আমের সুনাম। আম ও আমজাত দ্রব্য যেমন আচাড়, আমসত্ব রপ্তানি করে জেলার অর্থনীতি সমৃদ্ধ হচ্ছে। আম থেকে উৎপন্ন আকর্ষনীয় ও সুস্বাদু খাদ্যটি হল আমসত্ব। এই খাদ্যের মধ্যে শুধুমাত্র আম দিয়েই তৈরী। কোন রকম দ্রব্যর মিশ্রণ করা হয়না। গাছে আম পাকতে শুরু করলেই জেলার বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে তৈরী হয় আমসত্ব। মূলত গোপাল ভোগ, খিরসাপাত, হিমসাগর, টিকাপুড়ি ও ফজলি সহ কিছু গুটি আমের আমসত্বের মান ও স্বাদ ভাল হয়। কারণ এই সমস্ত আম প্রচুর মিষ্টি ও আমের ভেতরে কোন আঁশ থাকেনা। যার জেরে রস প্রচুর হয় ও প্রলেপ দিতেও সুবিধা হয়। গাছে আম পাকতে শুরু করলে সেই আম দিয়ে শুরু হয় আমসত্ব তৈরীর কাজ। আমসত্ব তৈরীর জন্য মূলত দরকার কড়া সূর্যের তাপ। আকাশে রোদ দেখা দিলে পাকা আম একটি পতলা কাপড়ে দিয়ে ঘষে রস তৈরী করা হয়। সেই রস একটি কাপড়ের গায়ে প্রলেপ দেওয়া হয়। সেটিকে রোদে শুকতে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *