শেয়ার করুন

অজয় রায়, বাংলা হান্ট : পরীক্ষার খাতায় শব্দ সংখ্যা কমে যাওয়ায় তরতরিয়ে কমছিল স্কোর কার্ডের নম্বর। বিষয় টা ভাবিয়ে তুলেছিল বছর ন’য়ের মুজাফফর আহমেদ খান কে। এই সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্য এই ক্লাস তিনের আবিষ্কার করে ফেলল একটি পেন যা লেখার সময় শব্দ সংখ্যা গননা করতে পারে। তার এই আবিষ্কার আলোড়ন সৃষ্টি করেছে গোটা কাশ্মীর জুড়ে। বছর ৯ এর মুজাফফর কাশ্মীরের গুরেজের সরকারি স্কুলে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। কম লেখার দরুন স্কোর কার্ডে নম্বর কমে যাওয়া ভাবিয়ে তুলেছিল তাকে।

আর তার এই ভাবনা তাকে এনে দিল কাশ্মীরের সর্বকনিষ্ঠ আবিষ্কারক এর তকমা। পেনটিতে লেখা শুরু করলে পেনের মাথায় লাগানো ছোট এল. সি. ডি মনিটরে ফুটে উঠবে শব্দ সংখ্যা। চাইলে মোবাইলে মেসেজ করে নেওয়া যাবে সেই শব্দসংখ্যা। খুদে বিজ্ঞানীর পেন তৈরি কথা তাদের পরিবারের একজন পরিচিত মানুষ জানতে পেলে সে যোগাযোগ করে ‘ন্যাশনাল ইনোভেশন ফাউন্ডেশন’ এর সাথে। এই অভিনব চিন্তা পছন্দ হয় সংস্থাটির। এবং তারাই মুজাফফর কে সাহায্য করে পেন টি তৈরি করার জন্য। ছেলের এমন সাফল্যে খুশি তার মা-বাবা।পাঁচ বছর বয়স অবধি কথাটাই ঠিক ঠাক বলতে পারত না এই খুদে বিজ্ঞানী। আর এখন সে বাকরুদ্ধ করেছে গোটা দেশ কে। আগামী মে মাস থেকে বাজারে পাওয়া যাবে এই পেনটি। বর্তমানে যখন হানাহানি, ধ্বংসলীলার কারনে খবরের শিরোনামে উঠে আসে কাশ্মীর সেইখানে এইধরনের খবর স্বস্তির প্রলেপ দেয়।

loading...
Loading...
শেয়ার করুন
Share a little biographical information to fill out your profile. This may be shown publicly.

আপনার মতামত প্রদান করুন