সাক্ষী মহারাজের নাইট ক্লাব উদ্বোধনে মুখ পুড়ল বিজেপি-র

 

 

বাংলা hunt ডেস্কঃ  বিজেপি-র সাক্ষী মহারাজের এক কাণ্ডে সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর ঠাট্টা। উত্তরপ্রদেশের উন্নাও-এর এই সাধু সাংসদ মনে করেন, ধর্ষণের জন্য মহিলাদের খাটো পোশাক দায়ি। সেই সাক্ষী মহারাজ তাঁর এলাকার দলের এক বিধায়কের ধর্ষণকাণ্ডে বেশ কোণঠাসা। সেই ক্ষোভের পরিবেশে সাক্ষী মহারাজ আজ নাইটক্লাবের উদ্বোধন করলেন। সাধুর গেরুয়া বসনে সাক্ষী ফিতে কাটলেন উত্তরপ্রদেশের আলিগঞ্জ এলাকায় এক নাইট ক্লাবের।

 

যে নাইট ক্লাবে রাতেরাতে নাচানাচি করবেন তাঁর মতে ‘ধর্ষক’-রা। কারণ একবার তিনি বলেছিলেন, নাইটক্লাব কালচারের জন্য দিল্লি-মুম্বইতে ধর্ষণ হচ্ছে। অবশ্য নাইট ক্লাবের উদ্বোধন করে বিতর্কে পড়ার পর সাক্ষী মহারাজ অসহায়ভাবে বলেন, তিনি জানতেন ওটা নাইট ক্লাব। তিনি নিজে একজন সাধু, জানলে ওসব নাইটক্লাবের উদ্বোধন তিনি করতেন না। দলকে তিনি জানিয়েছেন, কারও একজনের অনুরোধে তিনি উদ্বোধনে গিয়েছিলেন। তাঁকে বলা হয়েছিল সেটা একটা রেস্তোরা আর হোটেল। কিন্তু ভিতরে যে নাইটক্লাব আছে জানতেন না।

 

আসলে সাক্ষী এমন একজন সাংসদ যিনি বলেন, প্রকাশ্য স্থানে প্রেমিক-প্রেমিকারা এখন যেভাবে অশ্লীল ব্যবহার করেন। বাইক আরোহীদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, এমনভাবে সকলে বাইকে যায় যেন মেয়েটি ছেলেকে খেয়ে ফেলবে। প্রকাশ্য স্থানে গাড়ি, পার্ক বা অন্যান্য প্রকাশ্য স্থানেও অশ্লীল ব্যবহার করেন যুগলরা। এমনি সময়ে সকলেই তাঁদের এড়িয়ে যান। রাম রহিমের সমর্থনে তিনি বলেছিলেন, একজন ধর্ষণের অভিযোগ তুলছে বাবার বিরুদ্ধে, কিন্তু এতগুলো লোক যখন বাবাকে সমর্থন করছে, তখন পুরো বিষয়টা উলটোদিক থেকে খতিয়ে দেখা উচিত। যার জেরে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *