জাপানে ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা ১৪৪

 

বাংলা hunt ডেস্ক : প্রায় তিন দশক পর ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসের যৌথ থাবায় বিধ্বস্ত জাপান। এপর্যন্ত বন্যা ও ভূমিধসের কারণে ১৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ অনেকেই। সেনা ও দমকলবাহিনীরর প্রায় ৭০ হাজার কর্মী উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছেন। সেনা ও দমকলকর্মীরা নিজেদের জীবন বাজি রেখে উদ্ধার কাজে যোগ দিয়েছে। উল্লেখ্য, ১৯৮২ সালে জাপানে ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসে প্রায় ৩০০ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

এরপর তিন দশক পরে বন্যা ও ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে। গত বৃহস্পতিবার থেকে জাপানের পশ্চিমাঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে এই বন্যা ও ভূমিধসের সৃষ্টি হয়েছে। পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারে এইকারণে আগাম সতর্কতা জারি করা হয়েছিল। কিন্তু অনেকেই সতর্কতা না মেনে বাড়িতে আশ্রয় নেওয়ায় মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে প্রশাসন সুত্রে জানানো হয়েছে। তিন দশকেরও বেশি সময় পরে জাপানে প্রাকৃতিক দূর্যোগে এমন বিপুল সংখ্যক মানুষের প্রাণহানির ঘটনা ঘটল। জীবিতদের উদ্ধারে এখনও অভিযান অব্যাহত। অবশ্য এখনও অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন। পাশাপাশি উদ্ধারকারী দল প্রতিটি ফাঁকা ও ভূমিধসে চাপা পরে যাওয়া বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে দেখছে যে, এখনও কেউ আটকে রয়েছে কিনা। ইতিমধ্যেই ২০ লক্ষেরও বেশি মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এদের সকলে ফাঁকা স্কুলবাড়িতে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও নিখোঁজদের উদ্ধার অভিযানে কাজ করছেন কয়েক হাজার পুলিশ, সেনা ও দমকলকর্মী।


জানা গিয়য়েছে, নিহতদের অনেকেই স্থানীয় প্রশাসনের সতর্কতা মেনে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় না নিয়ে নিজ বাড়িতেই ছিলেন। একারণেই ভূমিধস ও বন্যায় তাদের মৃত্যু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *