জঙ্গলমহল সফরে মন্ত্রী শশী পাঁজা,ঘুরে দেখলেন অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র গুলি

 

কার্ত্তিক গুহ,ঝাড়গ্রাম:- জঙ্গলমহলের শিশুরা অপুষ্টি তে ভুগছে কিনা, খাদ্যের তালিকার সঠিক পরিমান খাদ্য পাচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখতে ঝাড়গ্রাম জেলা সফরে নারী ও শিশু উন্নয়ন এবং সমাজ কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী শশী পাঁজা।এদিন সকালে প্রশাসনিক রিভিউ বৈঠকের আগে মন্ত্রী শশী পাঁজা শহরের বেশ কয়েকটি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র ঘুরে দেখেন।

জেলাশাসকের সভাকক্ষে ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর ও বাঁকুড়া এই তিন জেলার বিডিও, দপ্তরের আধিকারিক, সিডিপিও ও বিভিন্ন আধিকারিকদের নিয়ে মিটিং করেন রাজ্য নারী ও শিশু উন্নয়ন এবং সমাজ কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী শশী পাঁজা।বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন নারী ও শিশু উন্নয়ন এবং সমাজ কল্যাণ দফতরের সচিব সঙ্ঘমিত্রা ঘোষ, যুগ্ম সচিব অভিজিৎ মিত্র,অতিরিক্ত সচিব নবগোপাল হিরা, ঝাড়গ্রামের জেলাশাসক আর অর্জুন, ঝাড়গ্রামের মহকুমাশাসক নকুলচন্দ্র মাহাত সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ আধিকারিক।

মন্ত্রী শশী পাঁজা বলেন, জেলাস্তরে আইসিডিএস সহ সরকারি প্রকল্প কেমন চলছে তা দেখার জন্য এবং রিভিউ করার জন্য এখানে এসেছি। আইসিডিএস, শিশুর আলোয় ,কনাশ্রী, রূপশ্রী নিয়ে জেলাস্তরের আধিকারিক ও ফিল্ড লেভেলের আধিকারিকদের নিয়ে আলোচনা করছি। এরমধ্যে অপুষ্টি, আইসিডিএস কেন্দ্র,  নিয়োগ প্রক্রিয়া ও নতুন বাড়ি তৈরি হওয়ার নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, অঙ্গনওয়াড়ী কেন্দ্রগুলিতে শিশু সলুভ পরিবেশ তৈরি করতে হবে। শিশুদের খাবারের ক্ষেত্রে টাকা-পয়সার বৃদ্ধি ঘটেছে। বাচ্চা ও প্রসূতি মায়েদের নতুন মেনু নিয়ে আলোচনা হয়েছে। চাল, তেল ও নুনের গুনগত মান এমন জায়গায় পৌঁছেছে যাতে অপুষ্টি প্রতিরোধ করা যাচ্ছে। বাঁকুড়া সহ যেসব জায়গায় অপুষ্টি রয়েছে, সেই সব শিশুগুলিকে ট্র্যাক করতে হবে। বাচ্চাদের একদিন গোটা ডিম ও একদিন অর্ধেক ডিম পাবে। ডিম প্রতিদিনই দিতে হবে। সকালে বাচ্চার যখন আসে তখন মর্নিং স্ন্যাক্স খাবার চাররকম জিনিস আছে। শুধু ছোলা ছাতুর পাশাপাশি বাকী তিন ধরনের খবার বাচ্চাদের খাওয়াতে হবে। এই সকালের খাবার  স্ব-নির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের দিয়ে তৈরি করে খাওয়ানোর চেষ্টা চলছে। শশীদেবী বলেন, ঝাড়গ্রামে নতুন সেন্টারের জন্য দাবি রয়েছে, সেটা পূরণ করা হবে। এখন ঝাড়গ্রাম ব্লকে ২৮টি, সাঁকরাইল ব্লকে ১৬টি নতুন সেন্টার তৈরি করা হবে। আরও যেখানে প্রয়োজন, আমরা তা তৈরি করে দেব। এছাড়াও বেশ কিছু আইসিডিএস সেন্টার উন্নতিকরণ করা হবে।পঞ্চায়েত ভোটের জন্য নিয়োগ প্রক্রিয়া আটকে ছিল। যাতে নিয়োগ চলছে। কোথায় কি আটকে রয়েছে, তা দেখতে বলেছি। আইসিডিএস সেন্টারগুলি ভালোভাবে পরিচালনার জন্য গ্রামের মানুষদের সক্রিয় হওয়ার কথা বলেন মন্ত্রী।