শেয়ার করুন
বাংলা হান্ট ডেস্ক : প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর অত্যন্ত স্নেহের প্রাক্তন কংগ্রেসের বিধায়ক জ্ঞানসিং সোহনপাল প্রয়াত। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।পেটে ব্যথা ও প্রোস্টেটের সমস্যায়  ভুগছিলেন তিনি।অস্ত্রোপ্রচারও করা হয়েছিল কিন্তু মাসখানেক ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন চাচা। খড়গপুরে চিকিৎসার সু-ব্যবস্থা না থাকায় শারীরিক অবস্থায় অবনতি হচ্ছিল। সে কথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কানে গেলে, তিনি চাচাকে এসএসকেএম-এ ভর্তির নির্দেশ দেন।সেইমত  গত ১ অগাস্ট তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল দুপুরে প্রয়াত হন এই প্রবীণ নেতা। তাঁর প্রয়াণে ট্যুইটারে শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
খড়গপুর শহরে চাচা খুবই জনপ্রিয় ছিলেন।১৯৬২ সালে প্রথম খড়গপুর কেন্দ্র থেকে জিতে বিধায়ক হওয়ার পর কারামন্ত্রী, বিধানসভার স্পিকারের মত একের পর এক পদের দায়িত্ব সামলান।অবশেষে ২০১৬ সালেও ৯২ বছরের চাচাকেই প্রার্থী করে কংগ্রেস।কিন্তু বয়স ও অসুস্থতার কারণে রাজনৈতিক সক্রিয়তা কমিয়ে দিয়েছিলেন চাচা।
গতকাল পিস হেভেনে রাখা হয়েছিল প্রাক্তন বিধায়কের মৃতদেহ। আজ সেখান থেকে বিধায়ক হস্টেলে নিয়ে যাওয়া হবে। তারপর তা যাবে প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে। সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন কংগ্রেস কর্মীরা। এরপর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বিধানসভায়। রাজ্যের সব দলের বিধায়ক ও সাংসদরা সেখানে শ্রদ্ধা জানাবেন তাঁকে। এরপর খড়গপুরে তাঁর বাড়িতে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।
loading...
Loading...
শেয়ার করুন
Share a little biographical information to fill out your profile. This may be shown publicly.

আপনার মতামত প্রদান করুন