দিল্লির বুরারিতে একই পরিবারের ১১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার

 

বাংলা hunt ডেস্ক : রবিবার সকালে দিল্লির বুরারিতে একই পরিবারের ১১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। এদিন সকালে মৃতদেহগুলি প্রথম দেখতে পান গুরুচরণ সিং নামে নিহতদের এক প্রতিবেশী। জানা গিয়েছে, নিহত ললিত পরিবারের একটি মুদি দোকান রয়েছে। এদিন সকাল পৌনে আটটা বেজে গেলেও দোকান না খোলায় গুরুচরণ খোঁজ নিতে গেলে মৃতদেহগুলি দেখতে পান। এরপর পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহগুলি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গুরুগোবিন্দ সিং হাসপাতালে পাঠিয়েছে। পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, নিহতদের মধ্যে ৭ মহিলা ও ৪ জন পুরুষ রয়েছে। এরমধ্যে ১০ জনের দেহ মুখ ও চোখ বাঁধা অবস্থায় ঝুলন্ত উদ্ধার হয়েছে।

আর ললিত পরিবারের সবথেকে বয়স্ক মহিলা নারায়ন ললিতের (৭৫) দেহ মেঝেতে শায়িত ছিল। ওই পরিবারে কোনও অশান্তি বা অভাব ছিল না বলেই জানা গিয়েছে। পাশাপাশি প্রতিবশীরা পুলিশকে জানিয়েছে, শনিবার রাত ১১ টা ৪৫ অবধি দোকান খোলা ছিল এবং ললিত পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কোনও অস্বাভাবিকতা চোখে পড়েনি। পুলিশ এই ঘটনা হত্যা না আত্মহত্যা তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। পাশাপাশি পুরো বাড়িটিকে ঘিরে রেখেছে পুলিশ। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। তিনি এই ঘটনার পূর্ণ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন। অন্যদিকে, দিল্লি পুলিশের যুগ্ম কমিশনার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এই ঘটনা হত্যা না আত্মহত্যা তার সব দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে । ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু হয়েছে। অবশ্য অভিশপ্ত বাড়িটির চারপাশে ভিড় জমিয়েছে কৌতুহলী জনতা। এছাড়াও ঘটনার আকস্মিকতায় ওই এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এবং একই পরিবারে ১১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

আরও পড়ুন   জেলে খুব মশা, সারারাত জেগেই কাটালেন সলমন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


  • Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    error: