“গর্ভের সন্তান আমার নয়”, প্রেমিকের এই কথায় আত্মঘাতী কিশোরী

 

সৌতিক চক্রবর্তী, রামপুরহাট, বীরভূম :- প্রথমে কিশোরীর সঙ্গে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস করলো এক যুবক। পরে বিয়ে করতে রাজি হলো না অভিযুক্ত সুজন মাল। এই পরিপ্রেক্ষিতেই বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করলো তিনমাসের অন্তঃসত্তা। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের নলহাটি থানার জেষ্ঠা গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে যে, কিশোরীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল নলহাটির সুলতানপুর গ্রামের যুবক সুজন মালের। সুজন পেশায় রাজমিস্ত্রি। এখন মেদিনীপুরে কর্মরত। বীরভূমের ওই জেষ্ঠা গ্রামে সুজনের এক নিকটতম আত্মীয়ের বিয়েতে সে আসে ও ওই কিশোরীর সঙ্গে মেলামেশা শুরু করে ও পরে ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয়। তার পর থেকেই ফোনে ওদের কথা চলতো। এমনকী যখন ও বাড়ি আসতো তখন সে এই গ্রামে এসে ওই কিশোরীর সঙ্গে দেখা করতো এমনকী সহবাসও করতো। এর জেরেই সে তিনমাসের গর্ভবতী হয়ে যায় কিন্তু সুজন পরে ওই কিশোরীকে ফোনে জবাব দেয় যে ওই সন্তান তার নয় ও সে ওই কিশোরীকে বিয়ে করতে পারবে না।

কিশোরীর ভাই বলেন, “আমার বোন ওই সুজনের সঙ্গে ঘোরাফেরা করতো। ওর সঙ্গে বিয়ের কথাও চলছিলো বলে ওর সঙ্গে মেলামেশা করতে আমরা বাধা দিইনি। কিন্তু ও যে গর্ভবতী হয়ে পড়েছিলো সেটা জানতাম না। ওর শারীরিক অবস্থা দেখে আমার স্ত্রী বুঝতে পারে ও গর্ভবতী হয়ে পড়েছে। এই কথা ঘরে জানাজানি হতেই ও বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করে”।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *