উদ্ধার পেলেও বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখা হবে না থাই কিশোরদের, কিন্তু কেন?

 

বাংলা huntঃ  খোদ ফিফা সভাপতির কাছ থেকে বিশ্বকাপ ফুটবল দেখার নিমন্ত্রণ পেয়েও খেলা দেখতে যেতে পারবে না গুহা থেকে সদ্য উদ্ধার হওয়া কিশোররা। থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহায় আটকা পড়া কিশোরদের সময়মতো গুহা থেকে বের করে আনার পর তাদের বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ফিফা সভাপতি জিয়ানি ইনফানতিনো। কিন্তু শারীরিক কারণেই মস্কো যাওয়া সম্ভব হবে না ওই কিশোর ফুটবলারদের। মঙ্গলবারই গুহায় আটকা পড়া ওই কিশোর ফুটবল দলের সকল সদস্যকে উদ্ধার করেছে থাই নেভি। উদ্ধার করে আনার পর থেকে তাদের হাসপাতালে রাখা হয়েছে। এমনিতে খুব বেশি অসুস্থ না হলেও বেশ কয়েকদিন না খেয়ে থাকার কারণে তারা শারীরিকভাবে কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়েছে। তাছাড়া লম্বা সময় গুহায় আটকে থাকায় তারা বাদুর ও ইঁদুরের কারণে কোনো সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হয়েছে কি না, সেটাও নিশ্চিত হতে চাইছেন চিকিৎসকরা। অন্যদিকে ফিফার তরফে জানানো হয়েছে, ওই কিশোরদের স্বাস্থ্যের বিষয়টিিকে গুরুত্ব দিচ্ছে ফিফা। তারা সুস্থ হলে ফিফার অন্য কোনও ইভেন্টে নিশ্চয়ই আমন্ত্রণ জানানো হবে।
প্রসঙ্গত গুহা থেকে উদ্ধার করার পর ওই কিশোর ফুটবলারদের দলটিকে হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও তাদের দেখা করতে দেওয়া হয়নি।

ফিফা সভাপতি জানিয়েছিলেন, মস্কোয় রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপের ফাইনালে থাই ওই দলের কোচসহ ১৩ জনের জন্য আসন বরাদ্দ থাকবে। তারা সময়মত উদ্ধার পেলে খেলা দেখতে পারবে মাঠে বসে।
প্রসঙ্গত ২৩ জুন নিয়মিত প্রশিক্ষণ শেষে এক কিশোরের জন্মদিন উদযাপন করতে ১২ সদস্যের ওই কিশোর ফুটবল দল এবং তাদের ২৫ বছর বয়সী কোচ চিয়াং রাই প্রদেশের ‘থাম লুয়াং’ গুহায় প্রবেশ করে।কিন্তু প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে গুহার ভেতর জল ঢুকে পড়লে দলটি সেখানেই আটকা পড়ে যায়। প্রায় ২ সপ্তাহ ধরে একটানা বৃষ্টিপাত এবং গুহার ভিতরে জলস্তর বাড়ার দরুন তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। গত রবিবার থেকে শুরু হয় উদ্ধার কাজ। অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এবং জটিল অভিযানে মঙ্গলবার কোচসহ পুরো দলটিকে উদ্ধারের কাজ শেষ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *